"কিরে পচা এই বারের এই এক ক্যারেট মাছ গুলান তো বিক্রি ই হইতাছে না। তিনদিন বরফে দিয়া থুইলাম। কেমন যেন ঝিমায়া গ্যাছে মাছ গুলান। কি হইব রে? আমার তো ব্যাবসা লাটে উঠব এই বার" নেপাল মুখ কালো করে কথা গুলো বলে তার সাগরেত কে। নেপাল এই বাজারে অনেক দিন ধরেই মাছের ব্যাবসা করে। চালানি রুই, কাতলা ই ওর প্রধান ব্যাবসা। বঁটি দিয়ে ঝটপট কাটা ও বেচা । আবার গোটা ও বেচে। নাম ও আছে তার।

পচা ওর সাগরেত। আঁশ ছাড়িয়ে দেওয়া। কাটা মাছ গুলো কে প্যাকেট এ ভরে দেওয়া ওর কাজ।

"ও বৌদি রুই লইয়া যান।কম দামে দিয়া দিমু। আসেন ই দিকে"।

বৌদি মাছ দেখে শুনে টিপে টাপে বলে,"মাছ গুলো কেমন গো, নেপাল দা। নরম লাগছে, না আজ নেবো না গো।"

"দ্যাখলি তো, বৌদি ও নিলো না। বোঝো ঠ্যালা"।

" ও নেপাল দা। চিন্তা করো না। আজ মাছ গুলোর ওপারেশন করে দেব। কাল আর তোমাকে খরিদ্দার ডাকতে হবে না"।

"কি করবা সোনা"।

" আরে নেপাল দা। বুড়ো আছে না। ওর কাছে একখান তেল আছে ,ওরা ওই দিয়া মাছ ভিজায়া রাখে। মাছ দশ দিনের বাসি হইলেও বুঝার যো নাই। কইতাছিল ফরমানিন না কি নাম। ঐ তেল নাকি মড়া মানুষের গায়ে লাগায়। যদি মড়া মানুষ টারে কয়দিন রাখণ লাগে"।

পচা, বুড়ো র সাথে কথা বলে ঠিক ঠাক করে নেয়। বাজার শেষে বিকাল বেলায় মাছের ওপারেশন হয়ে যায়।

নেপাল বাড়ি যায়। একটু রাত হয়ে যায়। গিন্নি বলে,"কি গো মুখ ভার কেনো"?

" আর বইলো না। এক ক্যারেট মাছ, ভুগাইতাছে গো।

"বাবু কই? ঘুমায়ইছে নাকি"?


"হ্যা গো। এই ঘুমালো। বলছিলো স্কুলে কি মাছ, সব্জি নিয়ে বলেছে। তোমাকে বলবে। সে তো ঘুমালো, কাল শুনো"।

নেপাল খেয়ে দেয়ে শুয়ে পরে। সকাল এর আশায় ।

পরদিন সকালে বাজারে তাড়াতাড়ি যায় নেপাল। মাছ গুলো বের করে দুজনে মিলে। বুড়ো ও আসে। দেখা যায় মাছের জেল্লা কিছুটা বেড়েছে।

পচা বিজয় গর্বে হাসতে হাসতে বলে, "দেখলে তো নেপাল দা। ওপারেশন ছাকশেসফুল"।

আজ আর তেমন বেগ পেতে হয় না। মাছগুলোর জেল্লা ফিরেছে। নেপাল একটু চড়া দামেই বিক্রি করে দেয়।

বেলা শেষে দেখা গেল এক ক্যারাট মাছ এর মধ্যে এক দু পিস মাত্র বেচে আছে। পচা কে আজ একটা একশ টাকার নোট পকেটে গুঁজে দেয়। ওপারেশন এর বকশিশ।

আজ নেপাল তারাতারি বাড়ি যায়। ছেলে বৌ এর জন্য চকোলেট আর মিষ্টি নিয়ে নেয় সঙ্গে করে। ছেলে তো চকোলেট পেয়ে খুব খুশী।

নেপালের একটাই ছেলে। ক্লাস সিক্সে এ পড়ে। নেপালের ছেলে বাবু যার ডাক নাম। বাবাকে বলে, "বাবা জানো, স্কুলের বিজ্ঞানের মাস্টার মশাই বলছিলেন, আজকাল যাঁরা দুষ্ট লোক, তারা মাছ, সবজি, ফলমুলে বিষ মেলাচ্ছে। যার ফলে যারা ওগুলো খাচ্ছে তাদের ভবিষ্যতে ক্যান্সারের মতো মারণ রোগ হতে পারে। আরো নানারকম রোগের ফলে আমাদের মতো যারা ছোট্ট, তাদের ভবিষ্যত খুব খারাপ। বাবা, কি দুষ্ট লোক ওরা! বলতো যারা এই সব বাজে বাজে কাজ করে"।

নেপাল ছেলের কথা শুনে কেমন বাকরুদ্ধ হয়ে যায়। সে রাতে ওঁর ভালো ঘুম আসে না। বার বার ছেলের ঐ কথাটি কানে বাজে, " দুষ্ট লোক ওরা....."।

ভোর রাতে যখন আড়তের দিকে মাছ আনার জন্য বেড়োয় নেপাল, বৌ কে বলে, " বুঝলা গিন্নি, আজ থাইকা শুধু জ্যান্ত মাছ বেচুম গো, জ্যান্ত মাছ"। মাছের আড়তে যখন নেপাল পৌছায়, দেখে পুবে রাঙা সূর্য উঠছে।

।সমাপ্ত।


bengali@pratilipi.com
080 41710149
সোশাল মিডিয়াতে আমাদের ফলো করুন
     

আমাদের সম্পর্কে
আমাদের সাথে কাজ করুন
গোপনীয়তা নীতি
পরিষেবার শর্ত
© 2017 Nasadiya Tech. Pvt. Ltd.