গত কাল রাম নবমী ছিল। ঐ দিনই অযোধ্যায় শ্রী রামের জন্ম। তাই রাম নবমী খুব ধুমধাম করে মানানো হয় ভারত বর্ষের বিভিন্ন প্রদেশে। আমাদের এখানে ও হয়। গতকাল সন্ধ্যায় একটি শোভাযাত্রা বেরিয়েছিল। কোথা থেকে কত পর্যন্ত তা জানি না। তখন রাত প্রায় নটা। আমি ঘোষ পাড়া রোড ধরে ছেলে কে আনতে যাচ্ছিলাম।

তখনই সেই মনোরম দৃষ্টি নন্দন শোভাযাত্রা র সম্মুখীন হলাম। সামনে লম্বা লম্বা ছেলে দুইটি হাঁটছে। একজন লম্বা চওড়া সুশ্রী ভদ্রলোক সামনে হাটছিলেন। তার পেছনে পুলিশের গাড়ি । তার পেছনে পেছনে বিশাল লাইট সহকারে অনেক গাড়ি। রথে করে রাম, লক্ষন আর সীতা দেবী। শ্রী হনুমান আর মুনি বাল্মীকি ও ছিলেন। স্বয়ং শিব ঠাকুরের বিরাট বড় লাইটের মডেল, শঙ্খ ধ্বনি করছিলেন। আর লাইট সাথে ডি জে। জয় শ্রী রাম ,জয় শ্রী রাম ধ্বনি তে আর নাচে আকাশ বাতাস মুখরিত তখন। একটা অন্যরকম মহল। সমস্ত যানবাহন পুরোপুরি স্তব্ধ। আমি এক পাশে চেপে দাড়িয়ে আছি।

ছেলে বার বার ফোন করছে। কারণ প্রায় আধাঘন্টা আগে ওকে টিউশন থেকে ছেড়ে দিয়েছে।

এমন সময় একজন রামভক্ত আমার মুখের কাছে মুখ এনে বললো, " বোল! জয় শ্রী রাম"! তার সারা শরীর তখন রাম রাম। আমি ভাবছি কি বলি, "জয় শ্রী রাম, না জয় বীর হনুমান"।

তৎক্ষনাৎ আর একজন ভক্ত, ঐ ভক্ত কে টেনে নিও গেল। ওরা সব পথচারী দের বলছিল, "বোল! জয় শ্রী রাম!"। পথচারী রা সবাই না হলে ও,বেশীর ভাগই বলেছিলেন ওদের সাথে। "জয় শ্রী রাম"!

কুড়ি মিনিট দাড়িয়ে থাকার পর, শোভাযাত্রা অতিক্রম করে, অবশ্যই বাইক টাকে রাস্তার ধারে দিয়ে টেনেটুনে নিয়ে, শেষমেশ বড় রাস্তার মুখ দেখতে পাই।

ছেলেকে বললাম শ্রী রামের শোভাযাত্রার কারনে আমার একটু দেরি হয়ে গেল বাবু। ছেলেকে নিয়ে যখন ফিরছি, শোভাযাত্রার লেজ তখনো দেখা যাচ্ছে। রাস্তায় তখনো জ্যাম। ছেলে মহানন্দে পেছন বসে লাফাচ্ছিল আর বলছিল, " জয় শ্রী রাম"! আর আমি জ্যাম অতিক্রম করতে করতে বাইক থেকে এক হাত তুলে, হাওয়ায় হাত ঘুড়িয়ে যেই বললাম, " জয় বীর হনুমান!"। রাস্তা যেন সাফ হয়ে গেল।

আমি বঙ্গে বাইক চালাতে চালাতে অনুধাবন করলাম, ত্রেতা যুগের শ্রী রামের পদধ্বনি, সুদূর অযোধ্যা ছাড়িয়ে যেন বঙ্গে পা রেখেছে।

সমাপ্ত

bengali@pratilipi.com
080 41710149
সোশাল মিডিয়াতে আমাদের ফলো করুন
     

আমাদের সম্পর্কে
আমাদের সাথে কাজ করুন
গোপনীয়তা নীতি
পরিষেবার শর্ত
© 2017 Nasadiya Tech. Pvt. Ltd.