সুখের ভেলা


আমি শ্রীজা,খুব সাধারণ একটা মেয়ে.বাবা,মা এর এক মাত্র মেয়ে,খুব আদরের.ছোট থেকেই আমি যব ছটফটে,সবাই বলতো আমি নাকি এক জায়গায় বেশিক্ষন বসে থাকতে পারিনা,র হাত পা ঘুরিয়ে নাচতে থাকি.আমার ঠাকুমা তাই আমাকে ডাক্ত নাচুনি বলে,তখন তো ছোট তাই জানতাম না,শুধু গান শুনলেই হাত পা দোলাতাম.আস্তে আস্তে বড় হলাম ,মামারবাড়ি যখন যেতাম ওখানে একটা ঘরে লুকিয়ে লুকিয়ে মা এর সারি পরে আমি নাচতাম,টিভি দেখে দেখে নিজেই শিখেছিলাম.সারাক্ষন নাচতাম বলে একদিন এক কাকিমা আমার মা কে বললেন "ছন্দা তোমার মেয়েকে নাচে ভর্তি করে দাও ওর নাচের খুব শখ"."শখ"....তখন এ বুঝলাম পড়াশোনা করাতো আছেই তার সাথেই নাচ তা হচ্ছে আমার শখ,যখন আমি নাচতাম মনে হতো আমি আনন্দের সাগরে ভাসছি.যে কোচিং সেন্টারে এ পড়তাম সেখানেই এক ম্যাডাম নাচ শেখাতেন,মা কে রাজি করিয়ে সেখানেই ভর্তি হলাম.খুব উত্তেজনা নিয়ে নাচ শিখতে গেলাম,একটা অদ্ভুত আনন্দ,শান্তি.রবীন্দ্রসংগীত এর সাথে আমার প্রথম নাচ এর শুরু হলো,সাথে তাল ও শিখলাম.আমরা কয়েকজন বান্ধবী মিলে নাচ শিখতাম,সরস্বতী পূজা এগিয়ে এলো,ম্যাডাম বললেন বড় অনুষ্ঠান ভালো করে করতে হবে.ঘুঙুর করতে বললেন সবাইকে,ঘুঙুর দেখে বাবা একটু রেগে গেলেন,বললেন পড়াশোনা করো ভালো করে,নাচ করে কি হবে?মা কিন্তু দমে যাননি,বললেন আমি যা পারিনি আমার মেয়ে তাই করবে,ও নাচ শিখবে.অনুষ্ঠান এর দিন বাবা কেও বললাম যেতে.মা,বাবা দুজনেই গেছিলেন, সেই প্রথম স্টেজে এ নাচ করবো,খুব হাত পা কাঁপছিল আবার আনন্দ ও হচ্ছিলো,হাতে মেহেন্দি,পা এ আলতা, লাল পার সাদা শাড়ি পরে আমার প্রথম নাচ,"বাজলো তোমার আলোর বেনু মাতল রে ভূবন".....বাড়ি এসে বাবা বললেন না মেয়েটা আমার ভালোই নাচে.এরপর র পিছনে তাকাই নি,কেটে গেলো অনেক দিন,পড়াশোনার পাশে নাচ নিয়ে আমি বেশ ভালোই ছিলাম,দিন গুলো স্বপ্নের মতো কেটে যাচ্ছিলো.graduation পাস করলাম,বিয়ের ঠিক করলো বাবা,মা আমিও রাজি হলাম.আমার হবু বর কে বললাম দ্যাখো আমার কিন্তু একটা শখ আছে,আমি নাচ শিখি ওটা আমার প্রাণ বলতে পারো,আমি কিন্তু নাচ ছাড়বো না.সে শুনে বললো আমিও তো নাচ করি,আমি ভাবলাম বাহ খুব ভালো হলো আমাকে তো তাহলে বুঝবে কিন্তু এতটাও ভালো বোধহয় র হলোনা.আমার শশুর আমাকে বললেন বিয়ের আগে যা করেছিস করেছিস বিয়ের পর কিন্তু বাড়িতেও নাচ করা যাবেনা,সব থেকে বার আঘাত তা বোধয় তখনি পেলাম,আমি বললাম কেন?উনি বললেন তুই বাড়ির বৌ,বাড়ির একটা সম্মান আছে তাই,আমি বললাম তোমার ছেলেও তো নাচ করে.উনি বললেন ও তো ছেলে করতেই পারে.আমি বুঝতে পারলাম পড়াশোনা করলেই র চাকরি করলেই মন টা বড় হয়না.আমার শাশুড়ি বললেন মেয়েরা গান করা ভালো কিন্তু ঢিঙ্গির মতো নাচ কি করবে?সব থেকে অবাক লাগলো আমার বর বললো মা,বাবা র কদিন তার পর নাহয় শিখবে.কি অদ্ভুত না মেয়েদের জীবন,কিভাবে এক নিমেষে আমার সযত্নে লালন করা শখ টা এরা শেষ করে দিলো.সেদিন থেকেই আমার শখ আমার সুখের ভেলা কে আমি ভাসিয়ে দিয়েছি,জানিনা র কখনো আমার কাছে ফিরবে কি না......অপেক্ষায় থাকবো.

bengali@pratilipi.com
080 41710149
সোশাল মিডিয়াতে আমাদের ফলো করুন
     

আমাদের সম্পর্কে
আমাদের সাথে কাজ করুন
গোপনীয়তা নীতি
পরিষেবার শর্ত
© 2017 Nasadiya Tech. Pvt. Ltd.